প্রবাসী ডিফেন্ডার তারিক আবহাওয়ার পার্থক্যে ‘সমস্যা’ দেখছেন না

image

ইউরোপের শীতপ্রধান দেশ ফিনল্যান্ডের সঙ্গে বাংলাদেশের তাপমাত্রার পার্থক্য অনেক। কাজী তারিক রায়হানের জন্যও মানিয়ে নেয়া কষ্টকর। তবে ফিনল্যান্ড প্রবাসী এই ডিফেন্ডার তাপমাত্রার ভিন্নতায় সমস্যা দেখছেন না। দ্রুতই মানিয়ে নিতে পারবেন বলে আশাবাদী।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর নেপালের বিপক্ষে দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ৩৬ জনের প্রাথমিক দলে থাকা তারিক গত মঙ্গলবার দেশে এসে শুরু করেছেন অনুশীলন। পর্যবেক্ষণপর্ব শেষ করে গতকাল সতীর্থদের সঙ্গে প্রথম অনুশীলন করেন তারিক। প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে ডাক পেয়ে রোমাঞ্চিত বসুন্ধরা কিংসের এই ডিফেন্ডার।

‘অবশ্যই এটা স্বপ্ন পূরণের মতো। মূল লক্ষ্য বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলা। আমি ভালো অনুভব করছি। দুই দিন আগে বাংলাদেশে এসেছি। আজকের অনুশীলনে সতীর্থদের সংস্পর্শে এলাম। সতীর্থদের সম্পর্কে জানতে পারা ভালো আমার জন্য।’

‘দলে জায়গা পাওয়ার জন্য আমি আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। পরিশ্রম করব। দেখা যাক, কী হয়। সবে অনুশীলনে যোগ দিয়েছি। নেপাল ম্যাচ নিয়ে আমার পক্ষে এখনই বলা খুব দ্রুত হয়ে যায়। মূল লক্ষ্য হচ্ছে ম্যাচের আগে যতটা সম্ভব ফিটনেস ফিরে পাওয়ার জন্য কঠোর পরিশ্রম করা এবং এরপর অবশ্যই জয়ের জন্য খেলা।’

তাপমাত্রার পার্থক্যকে বড় সমস্যা মনে করছেন না তারিক। অনুশীলন শেষে ২০ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডার জানালেন দ্রুতই মানিয়ে নেয়ার আশাবাদ।

‘ফিনল্যান্ডে তাপমাত্র মাইনাস ২ বা ৩। কিন্তু এখানে ৩৫ ডিগ্রি (বৃহস্পতিবার ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াস)। অবশ্যই পার্থক্য অনেক আমার জন্য। কয়েক সপ্তাহ কাটালে আর অনুশীলন সেশনগুলো করলে আমার জন্য মানিয়ে নেয়া বড় কোন সমস্যা হবে না।’