download

বঙ্গবন্ধু টি-২০

সাকিব-তামিম-মাহমুদুল্লাহরা অনুশীলনে

image

যুব বিশ্বকাপজয়ী ব্যাটসম্যান মাহমুদুল হাসান জয়কে নিশ্চিত দুর্ভাগা বলতেই হবে। মিরপুরে যেদিন পরমানন্দ, মহোল্লাস সেদিন তিনি একাডেমি ভবনে আইসোলেশনে। করোনার কারণে মিরপুর শেরেবাংলায় জাতীয় দল ও এইচপির ক্রিকেটার বাদে অন্য কারো প্রবেশ ছিল নিষিদ্ধ। গতকাল প্রথমবার খুললো শেরেবাংলার দুয়ার। এদিন শুধু সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহরাই শেরেবাংলায় আসেননি, ঘরোয়া ক্রিকেটে যারা রেগুলার পারফর্মার তারাও এসেছেন।

দেশের শীর্ষ ৮০ ক্রিকেটার নিয়ে ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপ। করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান জয় শুধু আজ মাঠে আসেনি। বাকি পাঁচ দলের ৭৯ ক্রিকেটার ছিলেন আজ মিরপুরে। মাঠে এক দল ঢুকছে, অন্য দল বেরিয়ে যাচ্ছে। কোন দল আবার অপেক্ষায় রয়েছে কোন দলের অনুশীলন শেষ হওয়ার। এভাবেই মিরপুরের একাডেমি মাঠ ছিল সরগরম। করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের শঙ্কা নিয়ে এভাবেই মাঠে ফিরেছে ঘরোয়া ক্রিকেট। শুক্রবার ক্রিকেটারদের করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। একমাত্র জয় বাদে প্রত্যেকেই করোনা নেগেটিভ। করোনা আক্রান্ত হলেও তার টি-২০ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণের সম্ভাবনা শেষ হচ্ছে না। গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বলেন, ‘জয়ের জন্য অপেক্ষা করবে দল। তরুণ ক্রিকেটার। দলে সুযোগ পেয়েছে। এ মুহূর্তে তার রিপ্লেসমেন্ট চাওয়া হলে মনটা ভেঙে যাবে। তার দ্বিতীয় টেস্টের ফল দেখে আমরা সিদ্ধান্ত।’

অনুশীলনের প্রথম দিনে সবার মধ্যমনি ছিলেন নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে আসা সাকিব আল হাসান। জাতীয় দল ও গুটি কয়েক সতীর্থদের সঙ্গে দেখা হয়েছে তার। গতকাল সব ক্রিকেটার পেয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে। তাইতো সব ক্রিকেটারকে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে কুশল বিনিময় করতে দেখা গেছে। পাঁচ দল প্রথম দিনের অনুশীলনে খুব একটা জোর দেয়নি। স্কিল অনুশীলন করলেও পরীক্ষা-নিরীক্ষা হয়েছে সামান্যই। দীর্ঘদিন পর মাঠে ফিরে পুরো দলকে একত্রিত করে টিম মিটিং করেছে প্রতিটি দল। সেখানে নিজেদের কর্মপরিকল্পনা ও লক্ষ্য নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আজ থেকে কঠোর অনুশীলন শুরু হবে। সকালে সাকিবের দল জেমকন খুলনা ও তামিমের দল ফরচুন বরিশালের অনুশীলন করার কথা রয়েছে। মধ্য দুপুরে অনুশীলন করবে বেক্সিমকো ঢাকা। দুপুরের পর মাঠে নামবে মিনিস্টার রাজশাহী ও গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম।