সাকিবের প্রত্যাবর্তনে সতীর্থদের আবেগী পোস্ট

image

নিষেধাজ্ঞার এক বছর শেষ। গতকাল থেকে নিষেধাজ্ঞামুক্ত হয়েছে সাকিব আল হাসান। ‘আবারও বিশ্ব ক্রিকেটে নবাবের শাসন’ দেখতে উন্মুখ ক্রিকেট অনুরাগীরা। বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডারের প্রত্যাবর্তনে সতীর্থদের আবেগী পোস্ট ঢেউ তুলেছে সামাজিক মাধ্যমে। মুশফিকুর রহিম থেকে শুরু করে যুব দলের ক্রিকেটাররাও তাকে স্বাগত জানিয়েছেন। লম্বা একটা পোস্ট দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশের দুটি টেস্ট ডাবল সেঞ্চুরির মালিক লিখেছেন, ‘তরুণ বয়সে আমরা একসঙ্গে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলাম এবং কখনও পেছনে তাকাতে হয়নি। গত বছর এটা শুনে খুব বড় ধাক্কা খেয়েছিলাম যে আমরা এক বছরের জন্য আর ড্রেসিংরুম ভাগাভাগি করতে পারব না। আমাদের কত চমৎকার স্মৃতি, ভালো সময়ে একসঙ্গে ছিলাম এবং কঠিন সময়েও। আমি খুব আনন্দিত যে এক বছর শেষ এবং একসঙ্গে আবার মাঠে নামব। তুমি সবসময় একজন চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফিরে এসেছ এবং তোমার সঙ্গে আরও বেশি বেশি ম্যাচজয়ী জুটি গড়ার জন্য আর অপেক্ষা সইছে না আমার। ইনশাআল্লাহ, একসঙ্গে আমরা দেশের জন্য আনন্দ বয়ে আনব।’

সাকিবকে ‘নবাব’ আখ্যা দিয়ে যুব দলের বিশ্বকাপজয়ী পেসার শরীফুল ইসলাম লিখেছেন, ‘ওয়েলকাম ব্যাক নবাব- সাকিব ভাই।’ বাঁহাতি অলরাউন্ডারের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিকেএসপি লিখেছে, ‘স্বাগতম সাকিব আল হাসান। ইনশাআল্লাহ, নবাব আবার শাসন করবে বিশ্ব ক্রিকেট!’ উইকেটরক্ষক ও ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান আরেকবার সাকিবের গর্জন শুনতে চান। সাকিবের সঙ্গে মাঠে অনুশীলন থেকে ফেরার এক ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘ক্রিকেট মাঠে স্বাগতম ভাই। আপনার বাঘের মতো গর্জন দেখতে আর তর সইছে না।’ সাকিবের সঙ্গে উইকেট উদযাপনের ছবি দিয়ে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের পোস্ট, ‘স্বাগতম, সাকিব ভাই।’

টেস্ট ম্যাচে দুজনের একসঙ্গে ছবি দিয়ে সৌম্য সরকার হার্ট ইমোজি দিয়ে লিখেছেন, ‘স্বাগতম, ভাই।’ সাকিবকে লিজেন্ড উল্লেখ করে লিটন কুমার দাশের পোস্ট, ‘স্বাগতম, লিজেন্ড।’ রেস্টুরেন্টের টেবিলে বসা সাকিব আর ইমরুল কায়েস। এমন এক ছবি পোস্ট করে আঞ্চলিক ভাষায় ইমরুল লিখেছেন, ‘আইয়া পড়ো, সাকিব।’

মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেনের পোস্ট, ‘রাজা ফিরেছে, স্বাগতম সাকিব ভাই।’ ‘স্বাগতম ভাই’- লিখেছেন সাব্বির রহমান। সাকিবকে ‘জীবন্ত কিংবদন্তি’ আখ্যা দিয়ে মেহেদী হাসান মিরাজের পোস্ট, ‘স্বাগতম, সাকিব ভাই! আবারও একই দলে আপনার সঙ্গে খেলতে অধীর অপেক্ষায়। আপনার মতো জীবন্ত কিংবদন্তির সঙ্গে ড্রেসিংরুম ভাগাভাগি করা অনেক বড় পাওয়া। আপনার কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি এবং এখনও অনেক কিছু শেখার বাকি আছে। আশা করি শীঘ্রই বাংলাদেশের জন্য খেলতে পারব।’