কর্মকর্তা বদল করে কিছু হবে না

সিস্টেম কাঠামো পাল্টিয়ে স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠা করতে হবে

দীর্ঘদিনের অব্যবস্থা, দুর্নীতি এবং অনিয়মের কারণে ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। স্বাস্থ্য মফিয়া ডন মিঠু, জালিয়াত চক্রের হোতা রিজেন্টের সাহেদ করিম, জেকেজির ডা. সাবরিনাসহ আরও যারা রয়েছেন তাদের দুর্নীতির আখড়া হয়েছে দাঁড়িয়েছিল স্বাস্থ্য বিভাগ। করোনা মহামারীর কারণে এদের দুর্নীতি জনসমক্ষে প্রকাশ হয়ে পড়ে। সরকার বাধ্য হয়ে সাহেদ এবং সাবরিনাকে গ্রেফতার করে তাদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শুরু করেছে। কিন্তু দুর্নীতির মাধ্যমে যিনি স্বাস্থ্য বিভাগ নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন সেই মিঠুর বিরুদ্ধে বা তার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাই নেয়া হয়নি। সিএমএসডি স্বাস্থ্য ইকুইপমেন্ট সরবরাহকারী ১৪টি প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করা হলেও মিঠুর মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়নি।

এ বাস্তবতায় সরকার স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক পদত্যাগ করেন, বদলি করা হয় পরিচালক (হাসপাতাল-ক্লিনিক) এবং নতুন মহাপরিচালক নিয়োগ দেয়া হয়। অবস্থাদৃষ্টে মনে করা যেতে পারে, স্বাস্থ্য ব্যবস্থার রোগ সারানোর জন্য যেখানে শেকড় থেকে পরিবর্তন করা জরুরি, সেখানে সরকারের উদ্যোগ হচ্ছে ‘চেহারা’ পাল্টিয়ে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার রোগ সারানো। ব্যাপারটা অনেকটা সড়ক পরিবহনে রং করে পুরাতন লক্কড়-ঝক্কড় বাস চালানোর মতো। এতে যেমন সড়কে দুর্ঘটনা কমেনি মৃত্যুর মিছিলও থামেনি, তেমনি স্বাস্থ্য ব্যবস্থার অনিয়ম, দুর্নীতি, অব্যবস্থাপনা বন্ধ হবে বলে আমরা মনে করছি না।

মোদ্দা কথা হচ্ছে, সমস্যা বা সংকট থেকে উত্তরণ ঘটাতে হলে মূল থেকে সংশোধন বা পরিবর্তন করতে হয়। কর্মকর্তা পাল্টিয়ে সমস্যার কোন সুরাহা কোনদিন হয়নি এবারও হবে না-যদি না সিস্টেম এবং কাঠামো পাল্টানো যায়, কাজের মধ্যে স্বচ্ছতা, জবাবহিদিতা প্রতিষ্ঠা করা যায়।

স্বাস্থ্য ব্যবস্থার রোগ নিরাময় করার কমিটমেন্ট বা সদিচ্ছা যদি থাকে সরকারের তবে সব দুর্নীতিবাজ এবং অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে। এক্ষেত্রে কাউকে বিশেষ সুবিধা দেয়া যাবে না। মনে রাখতে হবে, এক মিঠুকে বরাবরের মতো আইনের ঊর্ধ্বে রাখা হলে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা আবার দুর্নীতিবাজদের নিয়ন্ত্রণেই চলে যাবে। একজন করোনা রোগী যেমন গোটা জাতিকে করোনা আক্রান্ত করতে পারেন তেমনি একজন মিঠু গোটা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে দুর্নীতিতে আক্রান্ত করে রাখতে পারে, যেমন করে রেখেছে।

দুর্নীতিবাজ শুধু ব্যবসায়ী বা সরবরাহকারী নয়, তাদের যারা মদদ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর এবং মন্ত্রণালয় থেকে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে। উপড়ে ফেলতে হবে শেকড়। প্রশ্ন হলো, সরকার কি এটা করবে বা করতে সক্ষম হবে?

শুধু দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে হবে না স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বত্র কঠোরভাবে নিয়ম ও শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এ লক্ষ্যে একদিকে যেমন সিস্টেম পরিবর্তন করতে হবে, অন্যদিকে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কাঠামোও পরিবর্তন করতে হবে। এ প্রসঙ্গে বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে শনিবারের সংবাদ-এ। উল্লিখিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে সিস্টেম এবং কাঠামোর আমূল পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সর্বত্র শৃঙ্খলা ও চেইন অফ কমান্ড প্রতিষ্ঠা করতে হবে। প্রত্যেক স্তরে কাজের মধ্যে কঠোরভাবে স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। ক্রয়, সরবরাহ নিয়োগ, বদলি, পদোন্নতির নীতিমালা কঠোরভাবে মেনে চলার ব্যবস্থা থাকতে হবে। সব স্তরে এবং সব ক্ষেত্রে মনিটরিং বা কঠোর নজরদারি থাকতে হবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর বা স্বাস্থ্য বিভাগের সব কাজে বিশেষ করে নিয়োগ, বদলি, পদোন্নতি এবং ক্রয় ও সরবরাহের ক্ষেত্রে কঠোরভাবে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ এবং প্রভাবশালীদের প্রভাব বন্ধ করতে হবে। নিশ্চিত করতে হবে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সর্বত্র কাজ হবে আইন, বিধি এবং নিয়মমতো, এর বাইরে সব মহলের কোন প্রভাব বা হস্তক্ষেপ প্রতিহত করতে হবে।

স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দুর্নীতি, অনিয়ম, অব্যবস্থা কমিয়ে সংস্থাটিকে কর্মক্ষম করতে হলে কর্মকর্তা বদলির মলম লাগালে কাজ হবে না। কাজ হবে সিস্টেম কাঠামো বদল করে গোটা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে নিয়ম, বিধি এবং আইনের আওতায় পরিচালনা করতে পারলে।

নদীভাঙন রোধে সমন্বিত পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে

দেশের বিভিন্ন স্থানে নদীভাঙনে বিলীন হচ্ছে গ্রাম, বসতবাড়ি ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের বন্যার পানি কমতে থাকায়

বন্যাদুর্গতদের দুর্ভোগ নিরসনে সহায়তা কার্যক্রম জোরদার করুন

রাজধানী ঢাকার নিম্নাঞ্চলেও বিস্তৃত হয়েছে বন্যা। বালু নদীর পানি প্রবাহিত হচ্ছে বিপদসীমার ওপর দিয়ে। সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত অনেক

দায়ীদের চিহ্নিত করে আইনি ব্যবস্থা কি নেবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ

এবারও কোরবানির চামড়া নিয়ে কারসাজি হয়েছে বলে দাবি করছেন মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। কোরবানির পশুর চামড়ার দামে

বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত শতাধিক আহত চার হাজার

গত মঙ্গলবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ এক বিস্ফোরণে সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৩৫ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন

করোনা মোকাবিলায় বিজ্ঞানভিত্তিক পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে

সম্প্রতি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং পরিকল্পনামন্ত্রী তাদের বক্তব্যে করোনা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশের সফলতার কথা তুলে ধরেছেন

স্বাস্থ্যসেবার নতুন পরিপত্রটি বাতিল করুন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা কাজে নিয়োজিত ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীর আবাসিক হোটেলে থাকা নিয়ে স্বাস্থ্য

মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে হবে

দেশে বন্যা পরিস্থিতির ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে। তবে চলতি মাসের শেষের দিকে আবারও বন্যা দেখা দিতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতর

প্রাথমিকে শিক্ষার্থী ঝরে পড়া প্রসঙ্গে

প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার গত কয়েক বছর ধরে একই বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে। প্রাথমিক...

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে আইনের প্রয়োগ চাই

ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে দেশে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আরও বিস্তৃত হতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন। কোরবানির...