করোনা নিয়ন্ত্রণে সর্বাত্মক উদ্যোগ প্রয়োজন

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন এলাকার ৯ শতাংশ মানুষ করোনায় আক্রান্ত। এর মধ্যে আবার ৭৮ শতাংশই উপসর্গহীন। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এবং আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআর’বি) করা এক খানাজরিপে এ চিত্র উঠে এসেছে।

রাজধানীর দুই সিটিতে অন্তত দেড় কোটি মানুষের বাস বলে ধরে নেয়া হয়। এই বিপুলসংখ্যক মানুষের উপসর্গহীন থাকার বিষয়টি অত্যন্ত উদ্বেগজনক। এর অর্থ হলো, যারা করোনা পরীক্ষা করাচ্ছেন না তারা বা তাদের আশপাশের মানুষ জানছেই না যে সেই ব্যক্তিটি করোনা আক্রান্ত এবং এভাবে নিজের শরীরে ভাইরাস বহন করে আক্রান্ত ব্যক্তি অন্যদের শরীরেও সংক্রমণ ছড়িয়ে দিচ্ছে। বিষয়টি যে শুধু রাজধানীতেই হচ্ছে তা নয়, করোনা সংক্রমণ গোটা দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে এবং এখন গ্রামগঞ্জেও উপসর্গহীন রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, মহামারী পরিস্থিতির ওপর সরকারের কোনরকম নিয়ন্ত্রণ নেই। স্বাস্থ্য বিভাগ কার্যকরভাবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে পারছে না। একদিকে প্রয়োজনের তুলনায় পরীক্ষা কম হচ্ছে, অন্যদিকে পরীক্ষার ফলাফলে সামঞ্জস্য থাকছে না। সংক্রমণ কমার জন্য যেসব উদ্যোগ প্রয়োজন, সেগুলোর কোনটাই ঠিকমতো হচ্ছে না। নমুনা সংগ্রহ অর্ধেকে নেমে এসেছে। সংক্রমণ এক জেলায় কমলে অন্য জেলায় বাড়ছে। ফি নির্ধারণসহ নানা ধরনের শর্ত আরোপ করায় মানুষ পরীক্ষা করতে আসছেন না। উপসর্গ নেই এমন সন্দেহজনকদের পরীক্ষা করা হচ্ছে না। তাছাড়া আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে গেছেন এমন লোকজনদের কোয়ারেন্টিন করা হচ্ছে না। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, পরিস্থিতি সামাল দিতে হলে তিনটি প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হবেÑ মহামারী কি নিয়ন্ত্রণে, সংক্রমণ আবার মাথাচাড়া দিলে তা মোকাবিলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থা কি প্রস্তুত এবং নতুন রোগী শনাক্তকরণ ও তাদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিত (কনট্যাক্ট ট্রেসিং) করার সামর্থ্য কি আছে? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তিনটি ক্ষেত্রেই বাংলাদেশ পিছিয়ে রয়েছে। এসব ক্ষেত্রে তথ্যের ঘাটতি যেমন আছে, তেমনি আছে সর্বাত্মক উদ্যোগের অভাব।

স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে, মহামারী মোকাবিলায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেয়া মানদ- পুরোপুরি ব্যবহার করছে না বাংলাদেশ। পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে, তা কেউ বলতে পারছে না। বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক। পরিস্থিতি বিবেচনা করে অতি জরুরিভিত্তিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ সব ধরনের সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা জোরদার করা বাঞ্ছনীয়। সংক্রমণ পরিস্থিতির ওপর নজরদারি বাড়াতে হবে। রাজধানীসহ দেশের প্রতিটি জেলায় পর্যাপ্তসংখ্যক রোগ শনাক্তকরণ ল্যাবরেটরির ব্যবস্থা করতে হবে। পাশাপাশি নির্ভরযোগ্যভাবে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত করার জন্য সুনির্দিষ্ট পরীক্ষার কৌশল থাকতে হবে।

মহামারী সামাল দিতে পুরো সরকার ব্যবস্থাকে সম্পৃক্ত হতে হবে। মহামারী মোকাবিলায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেয়া নীতি ও কর্মপন্থা ধারাবাহিকভাবে অনুসরণ করতে হবে। এটা শুধু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একার কাজ নয়। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, ধর্ম মন্ত্রণালয়, তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি সাধারণ জনগণকে সম্পৃক্ত না করলে মহামারী নিয়ন্ত্রণ কঠিন হয়ে পড়বে।

মতপ্রকাশের বাধাগুলো দূর করুন

তথ্য অধিকার আইন হওয়ার এক দশক পেরিয়ে গেলেও দেশের খুব কম মানুষই জানে এ সম্পর্কে।

ছাত্রলীগের অন্যায়-অপরাধের শেষ কোথায়

সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাসে শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে স্বামীকে বেঁধে রেখে এক তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

করোনাকালে বাল্যবিবাহ রোধে বিশেষ উদ্যোগ নিতে হবে

করোনাভাইরাস সংক্রমণের এ সময়ে দেশে বাল্যবিবাহ প্রায় দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানা গেছে।

স্বাধীন কমিশনগুলোর স্বাধীনতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়ছে

একাধিক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে তাদের দফতর বা সংস্থার অধীনে সংশ্লিষ্ট কমিশনকেও যুক্ত করা হয়েছে।

অসৎ পুলিশ সদস্যদের ফৌজদারি আইনে দৃষ্টান্তমূলক সাজা দিন

মাদক ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড নিয়ে তীব্র সমালোচনায় পড়া কক্সবাজার জেলা পুলিশ ঢেলে সাজানো হচ্ছে।

কোন অজুহাতেই উপবৃত্তির টাকা থেকে শিক্ষার্থীদের বঞ্চিত করা যাবে না

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দেয়া উপবৃত্তির টাকা নিয়ে চলছে তুলকালাম কান্ড।

সাইবার অপরাধ রোধকল্পে সচেতনতা বৃদ্ধি ও ট্রাইব্যুনালের সংখ্যা বাড়ান

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ ইন্টারনেটের কারণে যেমন যোগাযোগ বেড়েছে, তেমনি নানা ধরনের সুবিধা পাচ্ছে মানুষ। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে সাইবার অপরাধও।

ব্যাংক খাতে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সুশাসন ফিরিয়ে আনুন

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন, ব্যাংকগুলো যে জনগণের আমানতে

অনলাইন ক্লাস নিয়ে নৈরাজ্য বন্ধ করুন

অনলাইন শিক্ষা নিয়ে দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে। এ নিয়ে