দেশের বাঁধগুলোর সক্ষমতা বাড়াতে হবে সংস্কারের লক্ষ্যে মনিটরিং করুন

ঘূর্ণিঝড় ফণী বাংলাদেশ অতিক্রম করে গেছে। ভারতের ওড়িশা উপকূলে আঘাত হানার পর পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঘূর্ণিঝড়। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন জেলায় হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। প্লাবিত হয়েছে অনেক স্থান। বাঁধ ভেঙে বা উপচে জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে। কোন কোন এলাকার মানুষকে উদ্যোগী হয়ে বাঁধ রক্ষা করতে দেখা গেছে। তবে অনেক স্থানে বাঁধ রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। কোথাও কোথাও বাঁধ রক্ষা পেলেও ফাটল দেখা দিয়েছে।

শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী বেশ দুর্বল হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছিল। যে কারণে সিডর বা আইলার মতো ক্ষয়ক্ষতি এবার ঘটেনি। অতীতের তুলনায় ক্ষয়ক্ষতি কম হলেও এবারের ঘূর্ণিঝড় উপকূল এলাকার বাঁধগুলোর দুর্বলতা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে গেছে আরেকবার। ২০০৭ সালে ঘূর্ণিঝড় সিডর এবং ২০০৯ সালে ঘূর্ণিঝড় আইলার সময়ও বাঁধগুলোর সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। অভিযোগ রয়েছে, আইলার পর গত প্রায় ১০ বছরেও অনেক স্থানে বাঁধের সক্ষমতা বাড়েনি। অভিযোগ রয়েছে, অনেক স্থানে দৈর্ঘ্য-প্রস্থ-উচ্চতা অনুযায়ী মাটি ফেলা হয়নি। বাঁধ নির্মাণের উপকরণ নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে। উপকূল এলাকার অনেক বাঁধই অরক্ষিত হয়ে পড়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) একশ্রেণীর কর্মকর্তা আর ঠিকাদারদের অনিয়ম-দুর্নীতির মূল্য দিতে হয়েছে উপকূল এলাকার মানুষদের।

শুধু উপকূল এলাকায়ই নয়, হাওর এলাকার বাঁধ নির্মাণেও একই ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া যায়। হাওরের বাসিন্দারা অতীতে এ কারণে চরম ক্ষতির শিকার হয়েছে। বাঁধ নির্মাণ নিয়ে অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়টি ওপেন সিক্রেট। সরকার বিভিন্ন সময় অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধে উদ্যোগও নিয়েছে, তবে সুফল মেলেনি। জরুরি হচ্ছে পাউবোর দুর্নীতিগ্রস্ত কর্মকর্তাদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেয়া। শুধু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটবে না।

ঝড়, জলোচ্ছ্বাস, অতিবৃষ্টি, বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেশে লেগেই আছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আগামীতে এ ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন পরিবেশবিদরা। এ অবস্থায় বাঁধগুলোই হতে পারে সবচেয়ে বড় রক্ষাকবচ। উপকূল অঞ্চল যেমন- হাওর অঞ্চলেও তেমন বাঁধের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে যেসব বাঁধ ভেঙে গেছে সেগুলো দ্রুততার সঙ্গে পুনর্নির্মাণ করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধগুলো সংস্কার করতে হবে। এ কাজে কোন অনিয়ম দুর্নীতি যেন না হয় সেটা কঠোরভাবে নিশ্চিত করতে হবে। ঘূর্ণিঝড়ে বাঁধ ভেঙে যাওয়ার কারণ চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

দৈনিক সংবাদ : ৫ মে ২০১৯, রোববার, ৬ এর পাতায় প্রকাশিত

সমাজ ও ব্যক্তির জন্য সৃষ্টি হচ্ছে ভয়াবহ সংকট

দেশে সংস্কৃতিচর্চার সুযোগ দিন দিন কমছে। সরকারি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে পেশাদারি, জবাবদিহি ও আন্তরিকতার অভাব। সংস্কৃতি

পরিবহন সেক্টরকে মাফিয়ামুক্ত করুন

সাত দফা দাবিতে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটে গত সোমবার দিনভর দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত

জঙ্গিবাদের হুমকি মোকাবিলায় ঐক্য গড়ে তুলুন

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার

গণধর্ষণ মামলার চার্জশিট প্রশ্নবিদ্ধ পুলিশের ভূমিকা

সুবর্ণচরে গণধর্ষণের শিকার নারীর অভিযোগ ছিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজের পছন্দের প্রতীকে ভোট দেয়ায় তার ওপর নির্যাতন হয়েছে

বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যবস্থা ত্রুটিমুক্ত করতে হবে

চাহিদার চেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা থাকলেও বিদ্যুৎ বিভাগ মানসম্মত বিতরণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে না পারায়

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাই কঠোর মনিটরিং

আসন্ন রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রিসাইক্লিংয়ে পরিকল্পিত ও স্থায়ী উদ্যোগ নিন

ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যবহার বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে ইলেকট্রনিক বা ই-বর্জ্যরে পরিমাণও। এসব ই-বর্জ্যরে দূষণ থেকে প্রাণ ও প্রকৃতিকে রক্ষা

বর্ষার আগেই ঢাকাডুবি কেন নগর কর্তৃপক্ষ কী করছে

চৈত্র মাসেই বৃষ্টির পানি জমে সয়লাব হয়ে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকার বেশিরভাগ এলাকার রাস্তা

পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে হবে

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলায় স্থানীয় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভিকটিমের স্বজনরা।