ধর্ষণ মামলার দ্রুত বিচার অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত

মোংলায় শিশু ধর্ষণের এক মামলায় চার্জ গঠনের পর ৭ কার্যদিবসের মধ্যে রায় ঘোষণা করেছেন বাগেরহাট জেলা ও দায়রা জন্য আদালত। মামলার আসামি আব্দুল মান্নান সরকারকে শিশু ধর্ষণের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায় ঘোষণা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মোহাম্মদ নূরে আলম। ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ৩ অক্টোবর। ঘটনার রাতেই সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তা ১১ অক্টোবর অভিযোগও দাখিল করেন। সব বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে ১৯ অক্টোবর আদালত রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বাদীপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

ধর্ষণ মামলার দ্রুত বিচার করে আদালত দেশে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। উক্ত মামলার বিচারিক প্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্ন হওয়ার পেছনে পুলিশ সক্রিয় ভূমিকা রেখেছে। ঘটনা জানার পরপরই আসামিকে গ্রেফতার করেছে। ভিকটিমে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে দ্রুত। তদন্ত কর্মকর্তা দ্রুততম সময়ে তদন্ত করে অভিযোগ দাখিল করেছেন। আদালত কালক্ষেপণ না করে চার্জ গঠন করেছেন। সাক্ষীদের যথাসময়ে আদালতে হাজির করার ফলে সাক্ষ্য-প্রমাণ সম্পন্ন হতে ন্যূনতম সময় লেগেছে। অপরাধ প্রমাণের পর আদালত রায় দিতে দেরি করেননি। আদালত, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আইনজীবী সংশ্লিষ্ট সবাই আন্তরিক হয়ে কাজ করলে যে দ্রুত বিচার করা সম্ভব সেটার উদাহরণ বাগেরহাটের ঘটনা। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ১৮০ দিনের মধ্যে মামলার বিচারকাজ সম্পন্ন করার কথা বলা হয়েছে। তার অনেক আগেই ট্রাইব্যুনাল রায় দিয়েছেন।

দেশে বিচারের দীর্ঘসূত্রতার অভিযোগ রয়েছে। নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ না হওয়ার পেছনে বিচারের দীর্ঘসূত্রতার দায় রয়েছে। এ সংক্রান্ত ধর্ষণ মামলা রয়েছে, যার বিচার হতে এক দশক সময় লেগেছে। নির্যাতন-ধর্ষণের অনেক মামলা এখনও নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে।

উল্লিখিত ট্রাইব্যুনাল দ্রুত রায় দিয়ে যে নজির স্থাপন করেছেন সেটা দেখে বাকি সবাই উদ্বুদ্ধ হবে বলে আমরা আশা করতে চাই। বিচারক, আইনজীবী, পুলিশ সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে আন্তরিকভাবে কাজ করলে সব মামলাই দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব। দেশে মামলার জট হয়ে গেছে। যথাসময়ে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ায় একদিকে যেমন ভিকটিমের ন্যায়বিচার প্রাপ্তিতে বিলম্ব হয়, অন্যদিকে তাদের ভোগান্তি বাড়ে। মামলা পরিচালনায় অর্থ ও সময় দুটোরই অপচয় হয়। নারী নির্যাতনের অনেক ঘটনায় দেখা যায় সংশ্লিষ্ট থানা শুরুতে মামলাই নিতে চায় না। মামলা নিলেও তদন্ত সঠিকভাবে করা হয় না। প্রসঙ্গক্রমে নুসরাত হত্যার ঘটনার কথা বলা যায়। মামলার তদন্ত সুষ্ঠু না হলে, চার্জশিট যথাযথ না হলে, আসামিদের গ্রেফতার বা সাক্ষী হাজির করা না হলে বিচার সম্পন্ন করা সম্ভব হয় না। শুধু বিচারক বা আদালতের একার পক্ষে দ্রুত বিচার নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। দ্রুত বিচার সম্পন্ন করতে হলে সব পক্ষেরই আন্তরিকতা প্রয়োজন।

বন্যহাতি নিধন বন্ধ করুন

কক্সবাজারে মানুষের নির্মমতায় একের পর এক মারা যাচ্ছে বন্যহাতি।

ধর্ষণ প্রতিরোধে আইনের কঠোর বাস্তবায়ন চাই

ধর্ষণ সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের বিধান রেখে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) বিল-২০০০’ জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

সরকারি কেনাকাটায় অনিয়ম দূর করুন

সরকারি কেনাকাটায় কিছুতেই দুর্নীতি থামানো যাচ্ছে না। সুযোগ পেলেই সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, দপ্তর, অধিদপ্তরের কেনাকাটার সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তারা দুর্নীতি করছেন পণ্য কেনাকাটায়।

স্বাস্থ্যবিধির কঠোর প্রয়োগ চাই

দেশে করোনা শনাক্তের আট মাস পেরোলেও এখনও সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসেনি।

অবৈধ ইটভাটা বন্ধ করুন

পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই যশোরের কেশবপুর উপজেলার শ্রীরামপুরে ফসলি জমিতে দুটি ইটভাটায় অবৈধভাবে ইট উৎপাদন ও বেঁচাকেনার কাজ চলছে।

রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর প্রসঙ্গে

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার নানা রকম চাপের কারণে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর প্রক্রিয়া ব্যাহত হচ্ছে। কক্সবাজারের বিভিন্ন পাহাড়ে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা নাগরিকরা নানা রকম অপরাধে জড়াচ্ছে।

মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মাদক বাণিজ্যের অভিযোগ সুরাহা করুন

এক শ্রেণীর মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র রোগীকে মাদকমুক্ত করার পরিবর্তে উল্টো মাদক ব্যবসা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হাসপাতালগুলোর চিকিৎসা কার্যক্রম মনিটরিং করতে হবে

অনিয়মের বেসরকারি হাসপাতাল পুষছেন সরকারি ডাক্তাররা। সরকারি চাকরি করছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আওতায় কোন না কোন সরকারি হাসপাতাল কিংবা মেডিকেল কলেজে।

অভিনন্দন সাদাত

আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশের কিশোর সাদাত রহমান। সাইবার বুলিং ও সাইবার অপরাধ থেকে শিশুদের সুরক্ষা নিয়ে কাজ করে ‘শিশুদের নোবেল’ খ্যাত এ পুরস্কার জিতে নেয় নড়াইলের ১৭ বছরের এই কিশোর।