রায়হান কবিরকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনুন সরকারকে অবশ্যই তার পাশে দাঁড়াতে হবে

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরায় দেয়া সাক্ষাৎকারের জের ধরে বাংলাদেশি নাগরিক রায়হান কবিরকে মালয়েশিয়ার পুলিশ ১৪ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে।

উল্লেখ্য, মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত অভিবাসী শ্রমিকদের দুর্ভোগ নিয়ে কথা বলায় তাকে গত শুক্রবার গ্রেফতার করা হয়। গত ৩ জুলাই আল জাজিরায় ‘লকড আপ ইন মালয়েশিয়াস লকডাউন’ শিরোনামে একটি তথ্যচিত্র সম্প্রচার করা হয়। সে তথ্যচিত্রে বাংলাদেশি নাগরিক রায়হান কবিরসহ আরও কয়েকটি দেশের নাগরিক মালয়েশিয়ায় আটকে পড়া অবৈধ শ্রমিকদের দুর্ভোগ নিয়ে কথা বলেন। তবে মালয়েশিয়ার সরকার শুধু রায়হানের ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করেছে এবং বাংলাদেশে ফেরত পাঠাবে। প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমেদ বলেছেন, তার ওয়ার্ক পারমিট বাতিলের বিষয়টি তার একান্তই ব্যক্তিগত। তিনি আরও বলেন, মালয়েশিয়ায় অনেক বাংলাদেশি শ্রমিক ও ব্যবসায়ী আছেন। একজনকে কেন্দ্র করে মালয়েশিয়ার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক খারাপ হতে পারে না।

মালয়েশিয়ায় রায়হানের সঙ্গে যা হচ্ছে সেটার আইনি ও নৈতিকভিত্তি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। দেশটির একাধিক আইনজীবী এ প্রশ্ন উত্থাপন করেছেন। তারা রায়হানের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। যদিও দেশটির সরকার রায়হানের সঙ্গে উক্ত আইনজীবীদের দেখা করতে দেয়নি। অভিযোগ উঠেছে, দেশটির পুলিশ রায়হানের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে। তার আটক ও নির্যাতনের ঘটনায় বাংলাদেশের মানুষ প্রতিবাদ জানাচ্ছে। তবে সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে এর প্রতিবাদ করতে দেখা যায়নি। সরকারের এ অবস্থান আমাদের হতাশ করেছে। বিদেশে কোন একজন নাগরিক নির্যাতন বা হয়রানির শিকার হবে আর সরকার নিশ্চুপ বসে থাকবে সেটা মেনে নেয়া যায় না। প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী বলেছেন, একজনকে কেন্দ্র করে মালয়েশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হতে পারে না। আমরা তার এ বক্তব্যের সঙ্গে একমত হতে পারছি না। নাগরিক একজন হোক আর একাধিক হোক তার পাশে রাষ্ট্রকে অবশ্যই দাঁড়াতে হবে। একটি রাষ্ট্রের কাছে তার নাগরিকদের অধিকারের চেয়ে বড় আর কিছুই হতে পারে না। অথচ বাংলাদেশে সরকারগুলো তথাকথিত ভালো সম্পর্কের অজুহাতে মালয়েশিয়া, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকদের অধিকারকে উপেক্ষা করছে।

আমরা বলতে চাই, সরকারকে অবশ্যই রায়হান কবিরের পাশে দাঁড়াতে হবে, তাকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। মালয়েশিয়ায় যেসব শ্রমিক অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন তাদের দুর্ভোগের অবসানকল্পে সরকারকে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা চালাতে হবে। নিজ দেশের নাগরিকের মানবিক ও আইনি অধিকারের পক্ষে লড়াই করলে কোন দেশের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হবে- এমন ধারণা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। অতীতেও দেখা গেছে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় অভিবাসী শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের পরিবর্তে তাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এটা কাম্য নয়।

নদীভাঙন রোধে সমন্বিত পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে

দেশের বিভিন্ন স্থানে নদীভাঙনে বিলীন হচ্ছে গ্রাম, বসতবাড়ি ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের বন্যার পানি কমতে থাকায়

বন্যাদুর্গতদের দুর্ভোগ নিরসনে সহায়তা কার্যক্রম জোরদার করুন

রাজধানী ঢাকার নিম্নাঞ্চলেও বিস্তৃত হয়েছে বন্যা। বালু নদীর পানি প্রবাহিত হচ্ছে বিপদসীমার ওপর দিয়ে। সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত অনেক

দায়ীদের চিহ্নিত করে আইনি ব্যবস্থা কি নেবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ

এবারও কোরবানির চামড়া নিয়ে কারসাজি হয়েছে বলে দাবি করছেন মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। কোরবানির পশুর চামড়ার দামে

বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত শতাধিক আহত চার হাজার

গত মঙ্গলবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ এক বিস্ফোরণে সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৩৫ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন

করোনা মোকাবিলায় বিজ্ঞানভিত্তিক পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে

সম্প্রতি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং পরিকল্পনামন্ত্রী তাদের বক্তব্যে করোনা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশের সফলতার কথা তুলে ধরেছেন

স্বাস্থ্যসেবার নতুন পরিপত্রটি বাতিল করুন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা কাজে নিয়োজিত ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীর আবাসিক হোটেলে থাকা নিয়ে স্বাস্থ্য

মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে হবে

দেশে বন্যা পরিস্থিতির ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে। তবে চলতি মাসের শেষের দিকে আবারও বন্যা দেখা দিতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতর

প্রাথমিকে শিক্ষার্থী ঝরে পড়া প্রসঙ্গে

প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার গত কয়েক বছর ধরে একই বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে। প্রাথমিক...

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে আইনের প্রয়োগ চাই

ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে দেশে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আরও বিস্তৃত হতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন। কোরবানির...